সৌন্দর্য্যে আলুর ব্যবহার

প্রতিটি রান্নাঘরেই আলু সবচেয়ে বেশী ব্যববৃত সবজি। পুষ্টিগুণে অনন্য এই সবজির রয়েছে আরেক গুণ। রূপচর্চায়ও আলু বেশ কার্যকর। একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে আলুতে উপস্থিত ভিটামিন সি, ফাইবার, ভিটামিন বি৬, আয়রন এবং পটাশিয়াম নানাভাবে ত্বকের পরিচর্যায় কাজে আসতে পারে। ত্বক ও চুলের জন্যও আলু অনেক উপকারী

ত্বকের ক্ষেত্রে কালো দাগ, রোদে পোড়া দাগ, বলিরেখা, চোখের নিচে কালো দাগ, চোখের ফোলা ভাব, মুখে ক্লান্তির ভাব, বয়সের ছাপ দূর করতে সাহায্য করে আলু। চুলের ক্ষেত্রে চুল পড়া, চুলের রুক্ষতা, চুলের অকাল পক্বতা দূর করতে আলু কার্যকারিতা অনেক। এই কারণেই তো প্রতিদিন আলুর পেস্ট ও রস মুখে লাগানোর পরামর্শ দিচ্ছেন রূপচর্চা বিশেষজ্ঞরা। জেনে নিই রূপচর্চায় আলুর ব্যবহার:

চুলের যত্নে আলু : ময়েশ্চারাইজিং হেয়ার প্যাক: তিন চা চামচ আলুর রস, দুই চা চামচ অ্যালোভেরা জেল ও এক চা চামচ মধু মিশিয়ে মাথায় লাগিয়ে রাখুন এক ঘণ্টা। ড্যামেজ কতটা গভীরের ওপর নির্ভর করে সময় কম বেশী করবেন। চুল কোমল, মসৃণ চকচকে হয়ে উঠবে নিমিষে। আলু শুধু খাবার হিসেবে না দেখে একে প্রতিদিনের স্কিন কেয়ারের অনুষঙ্গ হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে নিন। ঠকবার কোন প্রশ্নই আসে না। একদম সেইফ এই সবজীটি আপনার ন্যাচারাল সৌন্দর্য্যকে বাড়িয়ে তুলবে ভীষনভাবে।

সানর্বান দূর করতে: আলু কেটে নিয়ে সরাসরি সানর্বানের ওপর লাগাতে পারেন অথবা এর রস অ লাগাতে পারেন। পোড়া ভাব একদম চলে যাবে। পোকামাকরের কামড়, ইচিং ও র‍্যাশ এর চিকিৎসায়: আলু কেটে নিয়ে আক্রান্ত জায়গায় চেপে ধরুন। দিনের মধ্যে কয়েকবার করে করুন তাড়াতাড়ি সেরে উঠতে।

বলিরেখা কমায়: গবেষণায় দেখা যায়, মানসিক চাপ এবং পরিবেশ দূষণের কারণে অনেকেরই কম বয়সে মুখে বলিরেখা পড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে ত্বক কুঁচকে যাওয়া এবং সৌন্দর্য কমে যায়। এক্ষেত্রে আলুর রস দারুণ উপকারে আসে। আলুতে উপস্থিত ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আলুর রস বা পেস্ট বানিয়ে কম করে ২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখলে বলিরেখা অনেক কমে যায়।

ডার্ক স্পট কমে: অল্প পরিমাণ আলুর পেস্ট মুখে লাগিয়ে কম করে পাঁচ মিনিট ম্যাসাজ করতে হবে। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালো করে মুখটা ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে ত্বকের পুষ্টির ঘাটতি দূর হবে। সেই সঙ্গে ত্বকের ভিতরে লুকিয়ে থাকা দূষিত উপাদানও বেরিয়ে যাবে। ফলে ডার্ক স্পট কমবে, ব্রনের প্রবণতা কমে যাবে। দুটো মাঝারি মাপের আলুর টুকরো নিয়ে ২০ সেকেন্ড ব্লেন্ড করে নিতে হবে। তারপর তাতে ১ চামচ বেকিং সোডা এবং অল্প পানি মিশিয়ে ভালো করে সবকটি উপাদান মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর মিশ্রনটি ভালো করে মুখে লাগিয়ে কিছু সময় রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

পুড়ে যাওয়া চামড়াকে স্বাভাবিক করে: সারাদিন রোদে ঘোরার কারণে ত্বক পুড়ে যায়। এমন ‘ট্যান’ হয়ে যাওয়া ত্বককে স্বাভাবিক করতে আলুর কোনো বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে কয়েকটি আলুর টুকরোকে কিছুক্ষণ ফ্রিজে রেখে সেই ঠান্ডা আলু ত্বকে লাগালে দারুণ উপকার পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে আলুর রসও লাগানো যাবে।

ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ায়: নিয়মিত আলু দিয়ে ত্বকের পরিচর্যা করলে স্কিন টোনের দারুণ উন্নতি ঘটে। আলুর ভিটামিন এবং মিনারেল এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে আলুর খোসা সারা মুখে কম করে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রাখতে হবে। এরপর ধুয়ে ফেলতে হবে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে। মুখ পরিস্কার ও উজ্জ্বল হবে।

ড্রাই স্কিনের সমস্যা কমবে: শুষ্ক ত্বকে অনেক সময় লোশন বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করেও শুষ্কতা কমানো যায় না। এ ক্ষেত্রে প্রতিদিন এক গ্লাস আলুর রস পান করতে পারেন। আবার নিয়মিত আলুর রস আর পেস্ট মুখে লাগাতে হবে। আলুর রস ত্বকের শুষ্কতা কমাতে অনেক সাহায্য করে।

কোলাজেনের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়: কারও ত্বক কতটা সুন্দর এবং মসৃণ হবে তা অনেকাংশেই নির্ভর করে কোলেজেনের উৎপাদনের ওপর। যার কোলেজেনের উৎপাদন বেশি, তার ত্বক তত সুন্দর। এই কারণেই তো ডার্মাটোলজিস্টরা নিয়মিত আলুর সাহায্যে ত্বকের পরিচর্যা করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে: আলুর রস করে সেই রস তুলায় ভিজিয়ে নিয়ে চোখের নিচে লাগিয়ে শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। নিয়মিত ব্যবহার করলে চোখের নিচের কালো দাগ দূর হবে।

ঘাড়, গলা, কনুইয়ের দাগ দূর করতে: কাল দাগ দূর করার জন্য আলু বাটা কিংবা আলুর রস নিতে হবে, তার সাথে কাঁচা দুধ মিক্স করতে হবে। এই মিশ্রণ ঘাড়, গলা, কনুই ইত্যাদি স্থানে লাগিয়ে রাখতে হবে। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলতে হবে। কিছুদিন ব্যবহারেই দাগ-ছোপ কমে যাবে।

এই পদ্ধতিগুলো নিয়মিত মেনে চললে আপনার ত্বক ও চুল হবে আরও অনেক বেশি সুন্দর, আপনি হয়ে উঠবেন আরও লাবণ্যময়ী। আর ত্বকের যত্নে আলু যেসব কাজ করে তার সবগুলো প্রোডাক্টই পাবেন বায়োজিন স্কিন কেয়ার ক্লিনিকে। বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-http://bit.ly/2Jkd3LT

আপনি আর কি কি বিষয়ে জানতে চান তা কমেন্ট করে আমাদের জানান। বায়োজিন চেষ্টা করবে আপনাকে সেরা পরামর্শটাই দিতে।
ভালো থাকুক আপনার ত্বক।

Facebook Comments