কার্বোহাইড্রেট ব্লক না করে ওজন কমানো কি যায়?

খুব সহজে ওজন যেমন বাড়েনা তেমন খুব সহজে ওজন কমেনা। যারা খুব সহজে ওজন কমানোর জন্য ব্যাতিব্যাস্ত হয়ে যান তারা অনেক ধরনের ডায়েট করে ওভার এক্সারসাইজ করে ওজন কমিয়ে হয়তো ফেলেন কিন্তু পেটের চামড়া ঝুলে যায় সেই সাথে হুট করে কমে যাওয়া ব্যাক ও করে।

না খেয়ে ওজন কমানো গেলে তাতে আপনার ইমিউনিটি হ্রাস পায় সেই সাথে কমানো ওজন ফিরে আসে।

অনেকেই আছেন যারা খাবারে কার্বোহাইড্রেট শূন্য করে ফেলেন এটা ওজন কমানোর  সঠিক উপায় নয়।

আমাদের শক্তির উৎস কার্বোহাইড্রেট বাদ দিয়ে রক্তে সুগ্যার লেভেল কমে হাইপোগ্লাইসেমিয়ায় পরিনত হয়।

১. সাধারণ কার্বোহাইড্রেট

২. জটিল কার্বোহাইড্রেট ব্লক করার কারনে 

#বমি বমি ভাব।

#মাথা ঘোরা  

#কোষ্ঠকাঠিন্য.

#ক্লান্তি  

#পানিশূন্যতা.  

#নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ, ক্ষুধা হ্রাস সহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়।

পুরোপুরি কার্বোহাইড্রেট বাদ না দিয়ে কার্বোহাইড্রেট গ্রহণে সামান্য পরিবর্তন আনুন।

কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার দুপুরের মধ্যে শেষ করে ফেলুন।

ওজন কমানোর জন্য সঠিক উপায় অবলম্বন করতে চাইলে

যা করবেন-

১. প্রথমে বাইরের খাবার এড়িয়ে জান

২. সকল ধরনের সফট ড্রিংকস মেনু থেকে বাদ  দিয়ে দেন

৩. কৃত্রিম সকল সুগ্যার খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিতে হবে।

৪. ডুবো তেলে ভাজা খাবার এড়িয়ে চলতে হবে।

৫. রাতের খাবার ৭-৮ টার মধ্যে শেষ করতে হবে।

৬. অবশ্যই সপ্তাহে ৩/৪ দিন (৩০-৪০) মিনিট হাটতে হবে। 

ওজন বাড়ানো যত সহজ কমানোটা তার থেকে খানিকটা কঠিন তাই ওজন বাড়ানোর আগে নিয়ন্ত্রণ করুন।

 

Most. Nourin mahfuj

Fitness Nutrition Specialist

Bio-xin Fitness Solution

 

Facebook Comments