Esthechoc: এ্যান্টি এজিং বিউটি বুস্টার ডার্ক চকলেট – কি, কেন এবং কিভাবে ? ( ডাক্তারের মতামত)

esthechoc

আচ্ছা ত্বকে কেন রিঙ্কেলস পরে? অল্পবয়সেই কেন ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে যায়? কখনো ভেবে দেখেছেন?  ইউভি রেডিয়েশন, আনহেলদী ডায়েট, পল্যুশন, স্ট্রেস, স্মোকিং, নিয়মিত এক্সারসাইজ না করা এই সব কারনে আমাদের ত্বকে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে যায়। এতে করে ত্বকে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস তৈরী হয়। ফলাফল ত্বকে রিঙ্কেলস দেখা দেয়। সময়ের আগেই ত্বক বুড়িয়ে যায়। এই অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কিন্তু শুধু ত্বকে বয়সের ছাপই ফেলে না। এটি শরীরে হাই ব্লাড প্রেশার, ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, আলঝেইমার, পারকিনসন্স এর মত দুরারোগ্য ব্যাধির ডেভ্লপমেন্ট এর জন্যেও দায়ী।

এখন এই অক্সিডেটিভ স্ট্রেস আপনি দূর করবেন কিভাবে? 

আমাদের খাবারের মাধ্যমে আমরা এটা করতে পারি। ফ্রেশ ফলমূল, শাক সবজী, সামুদ্রিক মাছে এই এন্টি অক্সিডেন্টগুলো পাওয়া যায়।  কিন্তু সমস্যাটা হলো এই সব খাবারে এই এন্টি অক্সিডেন্ট থাকে খুবই সামান্য পরিমানে। যা শরীরের জন্যে মোটেই পর্যাপ্ত নয়। যেমন ধরুন সামুদ্রিক চিংড়ি মাছে এসটেকজেনথিন নামক একধরনের এন্টি অক্সিডেন্ট থাকে। ১০০গ্রাম সামুদ্রিক চিংড়িতে এসটেকজেনথিন এর পরিমাণ থাকে ১-৪ মিলিগ্রাম। কিন্তু এই ১০০ গ্রাম চিংড়ি মাছে আবার কোলস্টোরেল থাকে ২২০মিলিগ্রাম। তাই আপনি এন্টি অক্সিডেন্টের জন্যে চিংড়ি মাছ খাচ্ছেন ওইদিকে আপনার ব্লাডে আবার কোলস্টোরেল এর পরিমাণ বেড়ে যাচ্ছে। 

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে ক্যাম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটির রিসার্চাররা ১০ বছর রিসার্চ এর পর একটি ফুড সাপ্লিমেন্ট তৈরী করেছেন, যার নাম এস্থেচক। 

Out of stock
৳ 3,500
View product

এস্থেচক কি? 

এস্থেচককে আপনি ডার্ক চকলেট বলতে পারেন। তবে আর দশটা সাধারণ ডার্ক চকলেটের চেয়ে এস্থেচক একদমই আলাদা। এস্থেচককে আপনারা হেলথ সাপ্লিমেন্ট অথবা বিউটি সাপ্লিমেন্ট বলতে পারেন। এস্থেচকে আছে দুইটি খুব শক্তিশালী একটিভ এন্টি অক্সিডেন্টস। এপেকেটেহিন পলিফেনল যা আসে কোকোয়া থেকে। আরেকটি হল এসটেকজেনথিন , যা আসে সামুদ্রিক এলগি থেকে। ক্যাম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটির রিসার্চররা ১০ বছরের রিসার্চে এস্থেচককে এই এন্টি অক্সিডেন্ট গুলো দ্বারা সমৃদ্ধ করেছেন। মাত্র ৭.৫ গ্রাম এর একটি এস্থেচক আপনার শরীরের অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমিয়ে আনতে পারে। 

 

এস্থেচক কি কাজ করে? 

এস্থেচক আপনার শরীরে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস কমিয়ে আনে। এটি আপনার এজিং প্রসেসকে স্লো করে, আপনার চেহারার লাবণ্য ধরে রাখে। 

 

যে কোন ডার্ক চকলেট খেলেই তো তাহলে হয়…

জী ডার্ক চকলেটে আপনি পলিফেনল এন্টি অক্সিডেন্টটি পেয়ে যাবেন। তবে এখানেও সমস্যা হলো সাধারণ ডার্ক চকলেটেও এর পরিমাণ খুবই সামান্য। প্রতিদিন যদি আপনি ১০০গ্রাম ডার্ক চকলেট খান তবে আপনি এন্টি অক্সিডেন্ট পাবেন ১৬৬৪ মিলিগ্রাম। কিন্তু এর সাথে সাথে ১০০ গ্রাম চকলেটে আপনি পাবেন ৪০০ ক্যালরিও। বেশি ক্যালরি কনজিউম করলে আপনি ওয়েট গেইন করবেন। হাই ব্লাড প্রেশারের সমস্যায় পরে যাবেন। আর প্রতিদিন ১০০ গ্রাম করে যদি ডার্ক চকলেট খাওয়া শুরু করেন তাহলে তো কোন কথাই নেই। আপনি কার্ডিও সমস্যায়ও পরে যেতে পারেন। 

এখানেই কাজে এসেছে ক্যাম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটির ১০ বছরের রিসার্চ। রিসার্চাররা এস্থেচক তৈরী করেছেন এমন ভাবে যেখানে মাত্র ৭.৫গ্রাম এস্থেচকেই আপনি আপনার শরীরের জন্যে প্রয়োজনীয় এন্টি অক্সিডেন্ট পেয়ে যাবেন। 

 

এস্থেচক খেলে আবার ফ্যাট গেইন করবো না তো? 

কোন সম্ভাবনাই নেই।  ফ্যাট রিডিউস করার জন্যে এতে রয়েছে কোকোয়া বাটার। এটি বরং আপনার ফ্যাট কমাতে সাহায্য করবে। 

 

কতদিন খেতে হবে?

এস্থেচক ফুড সাপ্লিমেন্ট খাওয়া শুরু করার তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে আপনি আপনার ত্বকের পরিবর্তন বোঝা শুরু করবেন। আর এটা যেহেতু ফুড সাপ্লিমেন্ট এবং  শরীরে যেহেতু এটার কোন নেগেটিভ ইমপ্যাক্ট নেই, তাই আপনি এটা সবসময় কন্টিনিউ করতে পারেন।

Facebook Comments