ত্বকের জন্য উপকারী ফলগুলো

ফল খেতে কমবেশি সবারই ভাল লাগে। তবে আপনি যদি সেই দলের একজন হন, যাদের ফল খেতে ভাল লাগে না, তাহলে আপনার জন্যেও আছে সমাধান। ব্যস্ততা আর অনিময়ের কারণে ত্বকের বারোটা বেজেছে? মৌসুমি ফল হতে পারে আপনার সমস্যার সমাধান। ফল ব্যবহার করে প্রতিদিন মাত্র ১০ মিনিটের রূপচর্চায় কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে পারেন। জেনে নিন রূপচর্চায় ফল ব্যবহার করে কীভাবে উপকার পাওয়া যায়ঃ

লেবু

ভিটামিন সি আর অ্যান্টি অক্সিডেন্টে ভরপুর লেবু কাজ করে প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে। ত্বক পরিষ্কারের পাশাপাশি ত্বকের নানা ধরণের দাগ দূর করতে দারুণ কার্যকর এই ফলটি। চলুন দেখে নেই কী কী উপায়ে লেবু ব্যবহার করা যায়ঃ
# তৈলাক্ত ত্বকে যদি কালো দাগ কিংবা ব্রণের দাগ থাকে, তাহলে গোলাপ জলের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট।
# ত্বক যদি শুষ্ক হয় তাহলে গোলাপ জলের স্থানে ব্যবহার করুন নারকেল তেল, দাগের বিরুদ্ধে কাজ করবে।

পাকা পেঁপে

পেঁপেতে আছে ভিটামিন এ, বি এবং সি। ত্বকের জ্বালা ভাব কমানোর জন্য পাকা পেঁপের জনপ্রিয়তা অনেক। এছাড়াও ব্যাকটেরিয়া ও ফাঙ্গাস জনিত সমস্যা দূর করে পাকা পেঁপে। পাকা পেঁপে ব্যবহার করতে পারেন এইভাবেঃ
# পাকা পেঁপে চটকে মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট, এটি রোদে পোড়া ত্বকে দারুণ কাজ করে। এছাড়া ত্বকে ছত্রাকের সংক্রমণ থাকলে তাতেও কার্যকরী।
# শুষ্ক ত্বকে চামড়া উঠলে পাকা পেঁপে চটকে তাতে পরিমাণমত কাঠবাদামের তেল অর্থাৎ আমন্ড ওয়েল মিশিয়ে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট, এরপর নরম তোয়ালে দিয়ে মুছে ফেলুন।

ডালিম

প্রতিদিনের ধুলোবালি আর কড়া রোদে ত্বকের ব্যাপক ক্ষতি হয়, এক্ষেত্রে ডালিমের রস বেশ উপকারী। ডালিমে রয়েছে ভিটামিন সি ও কে, যা ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে। জেনে নিন কীভাবে ডালিম ব্যবহার করবেনঃ

# ডালিম ছেঁচে রসটুকু নিন, আক্রান্ত স্থানে তা লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট।
# ১ টেবিল চামচ বেসন, ১ টেবিল চামচ ডালিমের রস, ১ চা চামচ লেবুর রস ও ১ চা চামচ মুলতানি মাটি একসঙ্গে মিশিয়ে লাগিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। তৈলাক্ত ত্বকের দাগছোপ দূর করবে এই প্যাকটি।
# আপনার ত্বক শুষ্ক হলে মুলতানি মাটির বদলে দুধ অথবা মধু দিয়ে এই প্যাকটিই ব্যবহার করতে পারবেন।

Facebook Comments