গ্যাস্টিক পেইন কী করবেন?

ভেজীটেরিয়ান ব্যাক্তিরা সাধারনত আধাঁসিদ্ধ এবং কাচাঁ সবজির সালাদ গ্রহণ করেন। তাদের প্রতিদিনের মেনুতে এ ধরনের খাবার ই থাকে। এ ধরনের খাবার মানুষের সাস্থ্যের জন্য ভালো হলেও একটানা গ্রহণের কারনে শরীরে কিছু জটিলতা সৃষ্টি করে।

অনেক দিন যাবৎ আধাঁ সিদ্ধ খাবার কিংবা সালাদ খাওয়ার কারনে অনেকের শরীরে বিভিন্ন এসিডের প্রবনতা বেড়ে যায় এর ফলে গ্যাস থেকে গ্যাস্টিক পেইন হয় এবং অনেকদিন ধরে সুপ্ত অবস্থায় গ্যাস্টিক পেইন এক সময় মারাত্মক হয়ে আলসার এ পরিনত হয়।

গ্যাস্টিক পেইন কি? 

গ্যাস্টিক পেইন এক ধরনের অবস্থা যে অবস্থায় ব্যাক্তির উপর পেটে ব্যাথা অনুভব হয়,ব্যাথা ছাড়াও বমি বমি ভাব, পেট ফুলে যাওয়া এবং চেস্ট এ ব্যাথা হয়।

-যাদের গ্যাস্টিক পেইন এর সমস্যায় নেই 

-অল্প সমস্যা আছে এবং

-গুরুতর সমস্যা আছে

তারা একটানা অনেক দিন ব্যাপি সালাদ কিংবা আধাঁ সিদ্ধ খাবার এড়িয়ে চলবেন। তাপমাত্রা ঠিক রেখে রান্না করা খাবার গ্রহণ করবেন। 

 

গ্যাস্টিক পেইন নরমাল পর্যায়ে ২-১০ দিন এবং মারাত্মক পর্যায়ে টানা এক মাস ও আরও বেশি দিন থাকতে পারে এবং এক পর্যায়ে ক্রনিক অবস্থায় পেপটিক আলসার হয়।  ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি গ্রহণের অভ্যাস করুন এর পর পর নরম খাবার গ্রহণ করুন।

 

গ্যাস্টিক পেইন এর জন্য যে ধরনের  খাবারের এড়িয়ে চলবেন-

-ল্যাকটোজ জাতীয় খাবার

-কমলালেবু, বাতাবিলেবু

-বাধাঁকপি

-মূলা

-কচি শসা

-গোলমরিচ 

-পেয়াজ

-ক্যাফেইযুক্ত খাবার 

-মসলাযুক্ত, লবনযুক্ত, মিষ্টি জাতীয় খাবার 

-টমেটো সস

-স্টেরয়েডাল ড্রাগ

গ্যাস্টিক পেইন থেকে মুক্তি পেতে সময়মত নরম ও ফ্লুইড জাতীয় খাবার গ্রহন করবেন প্রয়োজনে ডাক্তারের এর পরামর্শ নিবেন।

 

Writer:

Most. Nourin Mahfuj

Fitness Nutrition Specialist

Bio-xin Fitness Solution

Facebook Comments