কিডনির কার্যক্ষমতায় জিরো ক্যালের প্রভাব

আজকের দিনে অল্প বয়সে ডায়াবেটিস খুব পরিচিত বিষয়। গত ২০১৯ এর জরিপ অনুসারে বহুল পরিচিত ডায়াবেটিস এ আক্রান্ত ব্যাক্তি মোটামুটি সকলের বাসায় এক থেকে দুইজন পাওয়া যায়। বংশগত কারণে শুধু নয় কৃত্রিম সুগ্যার গ্রহণের কারনে এর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে।

বাসায় যারা টাইপ -১ কিংবা টাইপ- ২  ডায়াবেটিস এর ব্যাক্তি রয়েছেন তারা সবকিছুতেই জিরো ক্যাল খান এক কাপ চা খাবো জিরো ক্যাল, একটু সুজি, সেমাই কিংবা পায়েশ খাবো জিরো ক্যাল দুধ টায় এক ফোটাও স্বাদ পাচ্ছিনা জিরো ক্যাল এমন করে সারাদিনে কম করে হলেও ৩/৪ বার জিরো ক্যাল গ্রহন করেন যারা কিছু তে জিরো ক্যাল খাচ্ছেন না কিন্তু এক কাপ চা জিরো ক্যাল ছাড়া উপায় নেই তাদের সহ সকলের জন্য আমার পরামর্শ জিরো ক্যাল সাদা চিনির থেকে দুইশত গুন বেশি মিষ্টান্ন সেই সাথে অতিরিক্ত গ্রহণ প্রসাবের সময় দেহ থেকে অধিকাংশ পানি ও ইলেক্ট্রলাইট বের করে দেয় যা আপনার খুব গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ কিডনির মারাত্মক ক্ষতি করে এবং একসময় আপনার কিডনির কার্যক্ষমতা অচল হয়ে যায়। 

যেসব ডায়াবেটিস এ আক্রান্ত ব্যাক্তির হাইপ্রেসার আছে তাদের জিরো ক্যাল গ্রহণে এলার্জিটিক প্রবনতা বৃদ্ধি করে। 

টাইপ- ১ ডায়াবেটিস এ ব্যাক্তিরা যাদের ইনসুলিন উৎপাদন হচ্ছেনা বাহির থেকে গ্রহন করতে হচ্ছে তারা জিরো ক্যাল ও সুগার দুইটাই গ্রহণ থেকে বিরত থাকেন।

টাইপ- ২ ডায়াবেটিস এ ব্যাক্তিরা যাদের অল্প হলেও ইনসুলিন উৎপাদন হচ্ছে তারা জিরো ক্যাল এর পরিবর্তে অল্প পরিমাণ লাল চিনি গ্রহন করতে পারেন যদি প্রতিদিন ৪০মিনিট থেকে ১ ঘন্টা হাটেন।

আপনি প্রতিদিন  যা খাবার খান ( ভাত, রুটি, বিভিন্ন ধরনের ফল,সবজি ) তাতে যথেষ্ট পরিমান সুগার থাকে যা আপনার জন্য পর্যাপ্ত। তাই আলাদা করে সুগার কিংবা জিরো ক্যাল গ্রহণের মাধ্যমে সাস্থ্য ঝুঁকি না বাড়ান।

যত ধরনের বিকল্প ও কৃত্রিম মিষ্টান্ন আছে সবগুলো  ডায়াবেটিস এর ব্যাক্তিদের জন্য ক্ষতিকর। জিরোক্যাল মাসে ৫-৭ টার বেশি নয় খুব বেশি হলে ১০ টা এর বেশি গ্রহণ আপনার কিডনির জন্য ঝুঁকি বাড়ানো।

বিঃদ্রঃ সুস্থ ব্যাক্তিবর্গ চিনির বিকল্প হিসেবে জিরো ক্যাল গ্রহণ করলে আজই তা বর্জন করুন।

 

Writer:

Most. Nourin Mahfuj

Fitness Nutrition Specialist

Bio-xin Fitness Solution

Facebook Comments